করোনা সংক্রমণের ভয়ে স্ত্রীকে গুলি করে স্বামীর আত্মহত্যা

img

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

করোনা ভাইরাসে যুক্তরাষ্ট্র ইতিমধ্যে আক্রান্তের সংখ্যায় ছাড়িয়ে গেছে সবাইকে। মৃত্যুর সংখ্যাও ১০ হাজারের বেশি। গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছে ১২শ’র বেশি এবং আক্রান্ত ৩০ হাজারের বেশি। এই অবস্থায় করোনার উপসর্গ দেখা দেওয়ায় সংক্রমিত হয়েছেন ভেবে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন দেশটির ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের এক দম্পতি। এরপর স্ত্রীকে গুলির পর আতঙ্কিত স্বামী নিজেও আত্মহত্যা করেছেন।

পুলিশের ধারণা, করোনা সংক্রমণের ভয়ে আতঙ্কিত হয়ে মর্মান্তিক এই কান্ড ঘটিয়েছেন তিনি। ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের লকপোর্ট টাউনশিপে বাড়ি থেকে ৫৫ বছর বয়সী প্যাট্রিক জেসেরনিক এবং তার স্ত্রী ৫৯ বছর বয়সী চেরিল শ্রিফার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। দুজনের মরদেহ ছিল দুই ঘরে। বন্দুকটি ছিল জেসেরনিকের মরদেহের পাশে।

এই দম্পতির পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, কয়েকদিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন শ্রিফার। তারা দুজনেই ভয়ে ছিলেন ব্যাপারটা নিয়ে। এরপর ছেলে জেরেনিসকের খোঁজ পাচ্ছিলেন না তার বাবা-মা। লকডাউন হওয়ায় সেখানে যেতে পারে পরিচিতজনকে খোঁজ নিতে পাঠান।

পরিবার থেকে পাঠানো ওই ব্যক্তি জেসেরনিক ও শ্রিফার দম্পতির বাড়ি যান খোঁজ নিতে। বাড়িতে গিয়ে তিনি প্রথম মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন। এরপর পুলিশকে খবর দেন তিনি। ময়নাতদন্তে জানা গেছে, নিজের মাথায় গুলি করার আগে স্ত্রী শ্রিফারকে পেছন থেকে গুলি করেন জেসেরনিক।

ইলিনয় রাজ্যে এখন পর্যন্ত ১২ হাজার ২৬২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৩০৮ জন মারা গেছে। লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে পুরো ইলিনয়। এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে মৃতের সংখ্যা প্রায় ১১ হাজার। আক্রান্ত ৩ লাখ ৬৮ হাজারের বেশি।