আম্ফানে ১১০০ কোটি টাকার ক্ষতি

img

 

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে প্রাথমিক হিসেবে বাংলাদেশের ১১০০ কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত জেলাসমূহ হচ্ছে সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পটুয়াখালী ও বরগুনা।

বৃহস্পতিবার বিকালে সচিবালয় থেকে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই কথা জানান।

ক্ষতিগ্রস্ত জেলাগুলোতে বাঁধ ও বাড়িঘরের জন্য টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে উপকূলীয়সহ ২৬ জেলায় ক্ষতি হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে এ পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী  ১০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। এদের মধ্যে পটুয়াখালীতে দুজন, যশোরে তিনজন, ভোলায় একজন, পিরোজপুরে একজন,সাতক্ষীরায় একজন এবং চুয়াডাঙ্গা জেলায় দুইজন মৃত্যুবরণ করেছেন।

ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ, পানিসম্পদ, কৃষি মন্ত্রণালয় এবং স্থানীয় সরকার বিভাগ ক্ষয়ক্ষতির প্রাথমিক হিসাব দিয়েছে। প্রায় এক হাজার ১০০ কোটি টাকা ক্ষতির প্রাথমিক হিসাব আমরা পেয়েছি। অন্য যেসব মন্ত্রণালয় আছে, তারাও রিপোর্ট দিয়েছেন, তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতির বিবরণ তারা দেয়নি। ঘূর্ণিঝড়ের আঘাতে উপকূলীয়সহ ২৬ জেলায় ক্ষতি হয়েছে। তবে, সারাদেশে মোট ক্ষতির তথ্য জানতে অন্তত সাত দিন সময় লাগবে।

সংবাদ সম্মেলনে মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব শাহ কামাল এবং দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোহাম্মদ মহসিন উপস্থিত ছিলেন।