ধর্ষকদের প্রকাশ্যে ফাঁসি চান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী

img

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ধর্ষকদের প্রকাশ্যে ফাঁসি দেয়া উচিত বলে মনে করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ধর্ষণ মামলায় জড়িতদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে যৌন হেনস্থাকারীদের জাতীয় রেজিস্টার তৈরির পরিকল্পনাও করেছেন তিনি।

 

তবে ইমরান খানের এই মন্তব্যের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করেছেন তারই পরামর্শদাতা। বলেছেন, ‘এমন সাজার বন্দোবস্ত করলে ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) নিষেধাজ্ঞায় পড়তে পারে পাকিস্তান। ফলে বাণিজ্যিক ক্ষেত্রে ‘সাধারণ সুবিধাপ্রাপ্ত দেশে’র মর্যাদা হারালে তার নেতিবাচক প্রভাপ পড়বে দেশের অর্থনীতিতে।’

ইমরান খান মনে করেন, ধর্ষণের মামলার অপরাধীর প্রকাশ্য ফাঁসি অথবা নপুংসক করে দেয়ার মতো ‘দৃষ্টান্তমূলক’ শাস্তিই প্রাপ্য।

সোমবার পাকিস্তানের একটি টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমার মতে ধর্ষকদের প্রকাশ্যে ফাঁসি দেয়া উচিত। কিন্তু আমার উপদেষ্টারা বলেছেন, এমন আইন হলে ইইউর সঙ্গে বাণিজ্যে অসুবিধার মুখে পড়তে হতে পারে।

গত সপ্তাহে লাহোরের কাছে হাইওয়ের উপর দুষ্কৃতিকারীরা পিস্তল উঁচিয়ে গাড়ি থামাতে বাধ্য করে মা ও মেয়েকে। এরপর তাদের দু’জনকেই ধর্ষণ করা হয়। ওই গণধর্ষণের ঘটনায় তোলপাড় চলছে পাকিস্তানজুড়ে।

মঙ্গলবার দেশটির মন্ত্রিসভার বৈঠকেও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। এতে ধর্ষণের সঙ্গে জড়িতদের কোনো ছাড় দেয়া হবে না বলে হুশিয়ারি করা হয়।