রায়হান হত্যা : কনস্টেবল টিটু ৫ দিনের রিমান্ডে

img

সিলেটে প্রতিনিধি:

সিলেটের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমদ হত্যা মামলায় গেপ্তার হওয়া পুলিশ কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাসের পাঁচদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত মূখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক জিহাদুর রহমান তার রিমান্ড মঞ্জুর করে।
টিটু বন্দরবাজার ফাঁড়িতে কর্মরত ছিলেন। রায়হান হত্যার পর তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়।

মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশলাইন্সে সুংযুক্ত থাকা অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয় বলে জানিয়েছেন পিবিআই সিলেটের পুলিশ সুপার (এসপি) খালেদুজ্জামান। এরপর তাকে আদালতে নিয়ে জামিন প্রাণর্থনা করা হয়।টিটুকে গ্রেপ্তারের ফলে চাঞ্চল্যকর এই মামলায় এই প্রথম কাউকে গ্রেপ্তার করা হলো।

রায়হান আহমেদের মৃত্যুর ঘটনায় গত ১২ অক্টোবর বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক (এসআই) আকবর হোসেন ভূইয়া ও কনস্টেবল টিটু চন্দ্র দাসসহ চারজনকে প্রত্যাহার করা হয়। এর মধ্যে এসআই আকবর পলাতক। বাকিরা মহানগর পুলিশ হেফাজতে।

মাহিদুল হাসান জানান, সোমবার বিকালে সিলেটের সিনিয়র মহানগর ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াদুর রহমানের আদালতে ঘটনার সাক্ষী হিসেবে জবানবন্দি দেন বন্দরবাজার ফাঁড়িতে ওই সময়ে কর্মরত পুলিশ সদস্য দেলোয়ার হোসেন, সাইদুর রহমান ও শামীম আহমদ। তাদের জবানবন্দিতে টিটু দাসের সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তাকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। 

উল্লেখ্য, গত ১১ অক্টোবর ভোরে বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে পুলিশের নির্যাতনের শিকার হন রায়হান আহমদ (৩৪) নামের এক যুবক। পরে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে তিনি মার যান। এই ঘটনায় ১২ অক্টোবর রাতে অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে হেফাজতে মৃত্যু আইনে সিলেট কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন রায়হানের স্ত্রী।