নারীকে পাঁচ টুকরো করে হত্যায় মোট ৭ জন গ্রেপ্তার হয়েছে

img

মফস্বল প্রতিবেদক:

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরজব্বার ইউনিয়নের জাহাজমারা গ্রামে নূর জাহানকে পাঁচ টুকরো করে হত্যার ঘটনায় আর দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এনিয়ে আলোচিত এই ঘটনায় সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যার মধ্যে পাঁচজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক মো. জাকির হোসেন।

নতুন গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন, মৃত মমিন উল্যার ছেলে মামলার ৬নং আসামি ইসমাঈল (৩৫) ও মারফতুল্ল্যার ছেলে মামলার ৭নং আসামি হামিদ (৩৪)।

জাকির হোসেন বলেন, গৃহবধূ নূরজাহানকে হত্যার পর পাঁচ টুকরো করার ঘটনায় সাত আসামির মধ্যে নিহতের ছেলেসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে চরজব্বর এলাকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনার পর থেকে পলাতক থাকা আসামি হামিদ ও ইসমাঈলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তারকৃত হামিদ ও ইসমাঈলকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করবে ডিবি।

গত ৭ অক্টোবর বুধবার বিকালে সুবর্ণচরের জাহাজমারা গ্রামের একটি বিলের মাঝের বিভিন্ন ক্ষেত থেকে নূরজাহান নামের ওই গৃহবধূর পাঁচ টুকরো লাশ উদ্ধার করা হয়। ক্লুলেস এই হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন, হত্যাকাণ্ডে অংশগ্রহণকারীদের চিহ্নিত করা, হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্রসহ অন্যান্য আলামত উদ্ধারে জেলা পুলিশ সুপার মো আলমগীর হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে নামে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সাতজনকে ইতিমধ্যে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।