টোকিও অলিম্পিক থেকে নাম প্রত্যাহার করল উত্তর কোরিয়া

img

ক্রীড়া প্রতিবেদক.

বৈশ্বিক করোনার মহামারী থেকে দেশীয় অ্যাথলেটদের সুরক্ষিত রাখতে আসন্ন টোকিও অলিম্পিকে অংশগ্রহণ করছে না উত্তর কোরিয়া। উত্তর কোরিয়ার ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের এক ওয়েবসাইটে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। উত্তর কোরিয়ার এমন সিদ্ধান্তে জাপান ফের অনিশ্চিয়তার মুখে পড়তে পারে বলে মনে করছেন অনেকে।

 

উত্তর কোরিয়ার ক্রীড়া মন্ত্রণালয় জানায়, ‘আমাদের কমিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছে ৩২তম গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে না খেলার। চলমান বৈশ্বিক মহামারি থেকে অ্যাথলেটদের সুরক্ষিত রাখতেই এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।’

আয়োজকরা নানা প্রতিবন্ধকতা সামলাতে হিমশিম খাচ্ছেন।ক্রীড়াবিদদের সুরক্ষার কথা ভেবে বিদেশি দর্শকদের নিষিদ্ধ করার কথা জানিয়েছেন ইতিমধ্যে।কিন্তু নতুন করে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় আবারও ঝুঁকির মুখে পড়ে গেছে টোকিও অলিম্পিক।

 

জাপানে ভ্যাকসিনেশন প্রক্রিয়াও খুব ধীরগতিতে চলছে। এমন সময়ে টোকিও অলিম্পিক আয়োজন কতটা দূরদর্শী হবে, সেই প্রশ্নও উঠছে দেশটির সাধারণ মহলের পক্ষ থেকে। এর মধ্যেই এলো উত্তর কোরিয়ার সরে যাওয়ার খবর।

যদিও জাপানের অলিম্পিক কমিটি মঙ্গলবার জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে তারা অলিম্পিকে অংশ না নেয়ার বিষয়ে আনুষ্ঠানিক কোনো বার্তা পাননি।

উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের কারণে পূর্বনির্ধারিত সূচি মেনে হচ্ছে না টোকিও অলিম্পিক। ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে আসে ২০২১ সালের জুলাইয়ে। এ নিয়ে দ্বিতীয়বার অলিম্পিক থেকে না প্রত্যাহার করল উত্তর কোরিয়া। ১৯৮৮ সালে সিউল অলিম্পিকে উত্তর কোরিয়া অংশ নেয়নি। এর মূল কারণ ছিল ‘কোল্ড ওয়ার’বা স্নায়ুযুদ্ধ। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর আশির দশকের শেষ পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে বজায় থাকে ‘কোল্ড ওয়ার’।