কুমিল্লায় ওষুধ কারখানায় বিস্ফোরণ, আহত ৮

img

কুমিল্লা প্রতিনিধি:

কুমিল্লার একটি ওষুধ কারখানায় বিস্ফোরণের ঘটনায় ৮ জন দগ্ধ হয়েছেন। ৭ এপ্রিল, বুধবার সকাল ১০টার দিকে বেঙ্গল ড্রাগিস্ট অ্যান্ড ফার্মাসিটিক্যালসে বিকট শব্দে বিস্ফোরণ হয়। এসময় কারখানার ভেতরে কয়েকজন আটকা পড়লে ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট এসে তাদেরকে উদ্ধার করেন।

আহতদের মধ্যে চারজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে ফায়ার সার্ভিস কতৃপক্ষ জানায়। তাদেরকে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

গুরুতর দগ্ধ চারজন হলেন শামিমা আক্তার (২৬), আল আমিন (২০), সন্ধ্যা রাণী (৫৬) ও মুকুল (২৬)। এছাড়াও ফ্যাক্টরির কাচ ও দেয়াল ভেঙে গুরুতর আহত হন আরও চারজন। হুড়োহুড়ি করে নিচে নামতে গিয়েও বেশ কয়েকজন আহত হন। 

প্রতিষ্ঠানটির প্যানেল ম্যানেজার সুমন দাত্ত জানান, তারা প্রথমে বিকট শব্দে বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনতে পান। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পান কারখানাটির দোতলার একটি অংশ উড়ে গেছে। এসি বিস্ফোরণ থেকে এই দুর্ঘটনা হয়েছে বলে দাবি তার। 

সরেজমিনে দেখা যায়, ভেতরে ছোপ ছোপ রক্তের দাগ। কাচ ভেঙে পড়ে আছে চারিদিকে। আশেপাশের কয়েকটি দেয়াল নড়বড়ে হয়ে দুলছে এবং কারখানাকে ঘিরে রেখেছে শ্রমিক ও স্থানীয়রা।

বিসিক কুমিল্লার উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম জানান, এটা অনিচ্ছাকৃত দুর্ঘটনা। মালিকপক্ষ বলছে এসি বিস্ফোরণে এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। অধিকতর নিশ্চিত হওয়ার জন্য তিনটি পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

এই বিষয় কুমিল্লার কান্দিরপাড় ফাঁড়ি ইনর্চাজ নরুল ইসলাম  বলেন, ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রথমে পরিস্থিতি শান্ত করে আহত সাত আট জনকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় মালিকপক্ষের কোনো গাফলিতি দেখলে প্রয়োজনী ব্যবস্থ্যা গ্রহণ করা হবে ।

ফায়ার সার্ভিস কুমিল্লার উপ-পরিচালক জসিম উদ্দিন জানান, ঘটনাস্থলে গিয়ে গুরুতর আহত চারজনকে উদ্ধার করা হয়। ওই বিল্ডিংয়ের দোতলায় দুটি এসি ছিল। একটি বিস্ফোরিত হয়েছে। তারপরও যেহেতেু এটি ওষুধ কারখানা, ঠিক কী কারণে এ বিস্ফোরণ ঘটেছে তা নিশ্চিতভাবে বলা যাচ্ছে না। তবে ওই সময় বিদ্যুতের ভোল্টেজ ওঠা নামা করছিল বলে মালিকপক্ষ দাবি করেছেন। এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে কুমিল্লা জেলা প্রশাসক কামরুল হক দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।