কাঞ্চন মল্লিকের বিরুদ্ধে পরকীয়া ও নির্যাতনের অভিযোগ স্ত্রীর

img

বিনোদন ডেস্ক:

টলিউড অভিনেতা ও তৃণমূল কংগ্রেসের সদ্য বিজয়ী বিধায়ক কাঞ্চন মল্লিকের বিরুদ্ধে মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ করেছেন তার স্ত্রী পিঙ্কি। অভিযোগ দায়ের হয়েছে নিউ আলিপুর থানায়। অভিযোগ করা হয়েছে কাঞ্চনের বান্ধবী তথা অভিনেত্রী শ্রীময়ী চট্টরাজের বিরুদ্ধেও।

পিঙ্কির অভিযোগ, তাকে মানসিক ভাবে নির্যাতন করেছেন কাঞ্চন। মত্ত অবস্থায় গালিগালাজ করেছেন। শুধু তাই নয়, নিজের বান্ধবীকে সঙ্গে নিয়ে কাঞ্চন গাড়ি থেকে তাকে নামিয়ে হেনস্থা করেছেন। টলিউডে এই দম্পতির কলহের কথা বহুদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল।

সংবাদমাধ্যমে পিঙ্কি জানিয়েছেন, শনিবার রাতে তার নিউ আলিপুরের বাড়িতে হাজির হন কাঞ্চন। সে সময় তিনি বাড়িতে ছিলেন না। বাড়িতে তাকে না পেয়ে চেতলা থেকে ফেরার সময় তার গাড়ি আটকান কাঞ্চন। সঙ্গে ছিলেন বান্ধবী শ্রীময়া চট্টরাজও। দুজনে মিলে তাকে হেনস্থা করেন।

পিঙ্কি বলেন, গাড়ি থেকে তাকে টেনে নামানোর চেষ্টা করা হয়। শ্রীময়ীর সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে পিঙ্কি কেন সংবাদমাধ্যমে মুখ খুলছেন, তা নিয়ে তাকে চেপে ধরেন কাঞ্চন। অন্যদিকে, শ্রীময়ী হুমকি দিয়ে বলেন, ‘কার লেজে পা দিয়েছো জানো না।’

শ্রীময়ীর সঙ্গে কাঞ্চনের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরেই গুঞ্জন টলিপাড়ায়। যদিও আগে তাতে কর্ণপাত করেননি পিঙ্কি। তবে রবিবার কাঞ্চনের পাশাপাশি শ্রীময়ীর নামেও অভিযোগ দায়ে‌র করেছেন পিঙ্কি।

কাঞ্চনের সঙ্গে সম্পর্কের গুঞ্জন এর আগে উড়িয়ে দেন শ্রীময়ী। পিঙ্কি কেন তার নাম করলেন, তা নিয়েও মুখ খোলেননি। এ নিয়ে কাঞ্চনও কোনও বিবৃতি দেননি।

প্রসঙ্গত, কাঞ্চন এবং পিঙ্কি দম্পতির আট বছরের একটি ছেলে রয়েছে। যদিও কাঞ্চনের এটা দ্বিতীয় বিয়ে। তবে তাকে নিয়ে এমন কোনো ঘটনা সামনে আসেনি। পিঙ্কি জানিয়েছেন, কখনো স্বামীকে নিয়ে প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি তিনি। কিন্তু ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে। তাই মুখ খুলতে বাধ্য হয়েছেন।