তুরস্কে দাবানলের প্রকোপ বাড়ায় ‘দুর্যোগ এলাকা’ ঘোষণা

img

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

তুরস্কে দাবানলের প্রকোপ বাড়ায় দেশটির দক্ষিণাঞ্চলের কিছু এলাকাকে ‘দুর্যোগ এলাকা’ ঘোষণা করেছেন সেদেশের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান। এই দাবানলে এখন পর্যন্ত ছয়জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইজন বন কর্মকর্তা রয়েছেন। আল জাজিরা।

গত বুধবার থেকে তুরস্কের কিছু এলাকায় দাবানলের কারণে বহু গাছপালা পুড়েছে। আগুন গ্রাম এবং কিছু পর্যটন এলাকায়ও ঢুকে পড়েছে। বহু মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিতে হয়েছে।

কৃষি ও বনমন্ত্রী বেকির পাকদেমিরলি শনিবার বলেছেন, প্রবল বাতাস ও অতিরিক্ত গরমের কারণে আগুণ বেড়ে যায়। ৯৮টি আগুনের মধ্যে ৮৮টি নিয়ন্ত্রণে এসেছে।

মানাভগাতে কমপক্ষে ৫ জন মারা গিয়েছেন। মারমারিসে মারা গেছেন একজন। দুইটি শহরই ভূমধ্যসাগরীয় উপকূলে পর্যটন এলাকায় অবস্থিত।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী ফারেত্তিন কোকা বলেছেন, দাবানলে মানভাগাতে ৪০০ জন ক্ষতিগ্রস্ত মানুষকে হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। ১০ জনের চিকিৎসা চলছে। মারমারিসে ১৫৯ জনকে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। পুড়ে যাওয়া একজন ব্যক্তির এখনো চিকিৎসা চলছে।

তুরস্কের সংবাদধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, এজিয়ান শহরের কিছু হোটেলের অতিথিদের সরে যেতে বলা হয়েছে। তাদেরকে সমুদ্র পথ দিয়ে সরিয়ে নিতে কর্তৃপক্ষ নৌকার ব্যবস্থা করেছে।

প্রেসিডেন্ট এরদোয়ান শনিবার হেলিকপ্টারে করে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন। টুইটারে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এরদোয়ান আক্রান্ত এলাকাকে ‘দুর্যোগ এলাকা’ বলে ঘোষণা করেছেন।

এরদোয়ান বলেছেন, ‘এই ক্ষত সারাতে প্রয়োজনীয় যেসব পদক্ষেপ নেয়া দরকার তা আমরা গ্রহণ করব। ক্ষতিগ্রস্তদের আমরা ক্ষতিপূরণ দেব, সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করব।’