মোদির জন্মদিন আজ, ভারতজুড়ে উৎসবের আমেজ

img

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

শুক্রবার ৭১ বছরে পা দিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এই উপলক্ষে 'সেবা ও সমর্পণ অভিযান' পালন করছে বিজেপি। প্রতি বছর এক সপ্তাহের জন্য সেবা দিবসে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কাজ করা হয় গেরুয়া শিবিরের পক্ষ থেকে। এই বছর তা বাড়িয়ে টানা ২০ দিনের মেগা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে দলটি। ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে ৭ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে এই কর্মযজ্ঞ।

মোদির জন্মদিনে দেশজুড়ে একদিনে কমপক্ষে দেড় কোটি মানুষকে টিকা দেয়া হবে। ২০ দিনব্যাপী বিভিন্ন স্বাস্থ্য শিবির, সচেতনতা অভিযান ও রক্তদান শিবিরের আয়োজন, প্রায় ১৪ কোটি গরিবদের বিনামূল্যে রেশন প্রদানের পরিকল্পনা নিয়েছে বিজেপি। পাশাপাশি এদিন মোদির ২০ বছরের রাজনৈতিক যাত্রার নিয়ে চিত্রপ্রদর্শনীর উদ্বোধন করবেন বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডা।

বারাণসীর ভারত মাতা মন্দিরে ৭১ হাজার মাটির প্রদীপ প্রজ্বলন করা হবে। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ছবি দেয়া প্রায় ৫ কোটি পোস্ট কার্ড পাঠানো হবে দেশের বিভিন্ন পোস্ট অফিস থেকে। কয়েকদিন আগেই পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ জানান, ৭১টি জায়গায় গঙ্গার ঘাট সাফাই, কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজনসহ অ্যাপের মাধ্যমে মোদির জন্মদিনের নানান মুহূর্ত দেখানো হবে।

জন্মদিনে মোদির পাওয়া উপহার ই-নিলামে তুলবে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়। অলিম্পিকস ও প্যারালিম্পিরক্সে পদক জয়ীদের সরঞ্জাম, অযোধ্যার রাম মন্দিরের ছোট সংস্করণসহ একাধিক উপহার পেয়েছেন মোদি। এসব উপহার নিলামে বিক্রি করে প্রাপ্ত অর্থ নমামি গঙ্গা প্রকল্পে অনুদান তহবিলে দান করা হবে।

নরেন্দ্র মোদির জন্মদিনে তাকে টুইটারে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাহুল গান্ধি থেকে শুরু করে জগৎ প্রকাশ নাড্ডা, ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারসহ ভারতের শীর্ষ রাজনীতিকরা৷

এদিকে, কংগ্রেসের যুব শাখা আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্মদিন উপলক্ষে 'জাতীয় বেকারত্ব দিবস' উদযাপন করার ঘোষণা করেছে। যুব কংগ্রেসের জারি করা এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, 'জাতীয় বেকারত্ব দিবস' এর আওতায় সংগঠনটি দেশব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করবে।

সংগঠনের সর্বভারতীয় সভাপতি শ্রীনিবাস বলেন, মোদি সরকার প্রতি বছর ২ কোটি চাকরি দেওয়ার বড় প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় এসেছিল, কিন্তু আজ কেন্দ্রীয় সরকার কর্মসংস্থানের ইস্যুতে সম্পূর্ণ নীরব। দেশে বেকারত্বের হার এক বছরে ২.৪ শতাংশ থেকে ১০.৩ শতাংশে উন্নীত হয়েছে। সরকার তরুণদের কর্মসংস্থান দিতে ব্যর্থ হয়েছে।