গার্লস স্কুল খুলে দিচ্ছে তালেবান, চলবে নারী শিক্ষকদের তত্ত্বাবধানে

img

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

দেশের সব গার্লস স্কুল খুলে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তী তালেবান সরকার। তবে, স্কুলে সহশিক্ষা ও মেয়েদের জন্য পুরুষ শিক্ষকের কোনো ব্যবস্থা থাকবে না। বয়েজ ও গার্লস স্কুলগুলো আলাদা আলাদা শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে এবং ইসলামি হিজাব পরিধানের ব্যবস্থা রেখে চালু হবে।

বৃহস্পতিবার কাবুলে তালেবানের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল্লাহ মুনির এ ঘোষণা দিয়েছেন। দেশটির বার্তা সংস্থা শাফাকনা এ খবর জানিয়েছে।

মোল্লা নুরুল্লাহ মুনির বলেছেন, স্কুল ও কলেজের ছাত্রীদের ক্লাসের জন্য নারী শিক্ষক ও ছাত্রদের জন্য পুরুষ শিক্ষক এখন সময়ের দাবি। গার্লস স্কুলগুলোর জন্য সব শিক্ষক থাকবেন নারী এবং বয়েজ স্কুলগুলোর জন্য পুরুষ শিক্ষকদের নিয়োগ দেয়া হবে।

আফগানিস্তানের অন্তর্বর্তী শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তালেবান কোনো অবস্থায় নারী শিক্ষার বিরোধী নয় এবং বিষয়টি এর আগেও ঘোষণা করা হয়েছে। নুরুল্লাহ মুনির বলেন, গার্লস স্কুলগুলোর জন্য ইসলামি অনুশাসন মেনে নিরাপদ পরিবেশ সৃষ্টি করা হবে।

তালেবান সরকারের শিক্ষামন্ত্রী এর আগে এক বক্তব্যে বলেছিলেন, স্কুল ও কলেজের ছাত্রীদের জন্য বিশেষ কোনো ড্রেস কোড থাকবে না তবে ছাত্রীদেরকে ইসলামি অনুশাসন ও আফগানিস্তানের ঐহিত্য ও সংস্কৃতি মেনে পোশাক পরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসতে হবে।

তালেবান শিক্ষামন্ত্রী এমন সময় নারী শিক্ষা সম্পর্কে এ বক্তব্য দিলেন যখন আফগানিস্তানের নারী শিক্ষা ও নারী অধিকারের ব্যাপারে আন্তর্জাতিক সমাজ বিশেষ করে পশ্চিমা দেশগুলো উদ্বেগ প্রকাশ করে আসছে। অবশ্য তালেবান গত আগস্ট মাসে আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ গ্রহণ করার পর থেকে নারী শিক্ষার কথা বলে আসলেও এখন পর্যন্ত মেয়েদেরকে স্কুলে আসার অনুমতি দেয়া হয়নি।