শেখ রাসেলের সমাধিতে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা

img

নিজস্ব প্রতিবেদক:

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিনে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে আওয়ামী লীগ।

সোমবার সকালে দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে কেন্দ্রীয় নেতারা বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত শেখ রাসেলসহ ১৫ আগস্টে নিহত শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর ধানমন্ডির ঐতিহাসিক স্মৃতি-বিজড়িত বঙ্গবন্ধু ভবনে জন্মগ্রহণ করেন শেখ রাসেল।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ঘাতকদের নির্মম বুলেট থেকে রক্ষা পাননি শিশু শেখ রাসেলও। বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে ঘাতকেরা নির্মমভাবে তাকেও হত্যা করেছিল। তিনি ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিলেন।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ৫৮তম জন্মদিন থেকে শেখ রাসেলের জন্মদিন জাতীয়ভাবে ‘শেখ রাসেল দিবস’ হিসেবে পালিত হচ্ছে।

শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণী দিয়েছেন। পাশাপাশি শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠনসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন বিস্তারিত কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, হত্যা, ষড়যন্ত্র ও সাম্প্রদায়িক রাজনীতির কারণে বহু কষ্টে অর্জিত গণতন্ত্রের ওপর আঘাত এসেছে। কাজেই আজকের দিনে আমাদের শপথ হোক- বাংলাদেশের অর্জন, উন্নয়নের বিরুদ্ধে যে সাম্প্রদায়িক অপশক্তির যে ডাল-পালার বিস্তার লাভ করেছে। এ বিষবৃক্ষ ও ডালপালা উপরে ফেলতে হবে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিশ্বের ইতিহাসে এ নৃশংসতম রাজনৈতিক হত্যা হয়নি। কিন্তু মানব সভ্যতার ইতিহাসে ৭৫' এর ১৫ আগস্ট নৃশংসতম হত্যা কাণ্ড হয়েছে। যে হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছে শেখ রাসেলের মতো অবুঝ শিশুও। অথচ বিশ্বের ইতিহাসে কোনো শিশু হত্যা কাণ্ডের টার্গেট হয়নি। কিন্তু জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠপুত্র শেখ রাসেলকে টার্গেট করে হত্যা করা হয়েছে। রাসেল ছিলেন মেধাবী, বুদ্ধিদীপ্ত, বিনয়ী ও সম্ভবনাময়ী। তার মধ্যে ছিল ভবিষ্যৎ নেতৃত্বের ছাপ।

এসময় দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, আব্দুর রাজ্জাক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, দীপু মনি, আফম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, আহমেদ হোসেন, আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সবুর, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে শহীদ শেখ রাসেলের কবরে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় আওয়ামী যুবলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলো। এ সময় ফাতেহা পাঠ, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলও করা হয়। এতে ১৫ আগস্টে নিহতদের রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয়।