বিশ্বজুড়ে খাদ্যের সংকট হতে পারে ভয়াবহ, সতর্ক করছে জাতিসংঘ

img

আন্তর্জাতিক প্রতিবেদক: 

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ দ্রুত সমাধান করা না গেলে আগামী মাসগুলোতে বিশ্বজুড়ে খাদ্যের সংকট ভয়াবহ আকার ধারন করতে হতে পারে। আর এই জন্য রাশিয়া-ইউক্রেন সমস্যার দ্রুত সমাধানের তাগিদ দিয়েছে এই রাষ্ট্রপুঞ্জ।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘের মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস বুধবার রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব কতটা ভয়াবহ সেবিষয়ে কথা বলছিলেন। গুতেরেস বলেন, ‘এই যুদ্ধ পরিস্থিতিতে খাদ্যপণ্যের দাম ক্রমবর্ধমান। আর এই কারণে দরিদ্র দেশগুলো খাদ্য সংকটে পড়তে পারে।’

যুদ্ধের আগের সময়ে ইউক্রেন যেভাবে তাদের পণ্য রপ্তানি করত, দেশটি যদি পুনরায় তা করতে না পারে তাহলে বিশ্বজুড়ে দুর্ভিক্ষ নেমে আসতে পারে বলেও মনে করছেন জাতিসংঘ মহাসচিব।

তিনি বলেন, আমরা বলতে চাই, এই সংঘাত বিশ্বের লাখ লাখ মানুষকে অপুষ্টি, অনাহার এবং দুর্ভিক্ষের দিকে ঠেলে দিতে পারে। আর এই দুর্ভিক্ষ বছরের পর বছর স্থায়ী হতে পারে।’

এক প্রতিবেদনে বিবিসি বলেছে, যুদ্ধের কারণে ইউক্রেনের বন্দর বন্ধ থাকায় দেশটি থেকে পণ্য রপ্তানিও বন্ধ। সূর্যমুখী তেল, ভুট্টা এবং গমের মতো প্রয়োজনীয় পণ্য বিপুল পরিমাণে জোগানদাতা দেশ ইউক্রেন। কিন্তু দেশটি এসব পণ্য রপ্তানি করতে না পারায় এরইমধ্যে এর জের পড়েছে খাদ্য ব্যবস্থায়।

জাতিসংঘের হিসাব বলছে, ইউক্রেনের রপ্তানিজনিত কারণে বিশ্বব্যাপী সরবরাহ কমেছে। আর বিকল্প জায়গা থেকে পণ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে বিশ্বব্যাপী খাদ্যের দাম দাম বেড়েছে গত বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৩০ শতাংশ বেশি।

জাতিসংঘ মহাসচিব বলছেন, ইউক্রেন থেকে পণ্য রপ্তানি স্বাভাবিক অবস্থায় ফেরাতে রাশিয়া, ইউক্রেন, যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সঙ্গে জাতিসংঘ যোগাযোগ চালিয়ে যাচ্ছে।