জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথমবারের মতো লিখিত ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন

img

শিক্ষা প্রতিবেদক:

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির ‘ইউনিট-১’ (বিজ্ঞান শাখা) ভর্তি পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সাংবাদিকদের জানিয়েছে, সকাল-বিকাল ভর্তি পরীক্ষা চলাকালে জালিয়াতির কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

ভর্তি জালিয়াতি রোধ করতে এবারই প্রথম এমসিকিউ পরীক্ষা পদ্ধতির পরিবর্তে লিখিত পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। প্রশাসনের এই উদ্যোগ অনেকটাই সফল হয়েছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা যায়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় ‘ইউনিট-১’ এর ৮২৫টি আসনের বিপরীতে প্রাথমিকভাবে ভর্তি পরীক্ষার জন্য ৪৬ হাজার ৪১৮ জন শিক্ষার্থী আবেদন করেছিলেন। বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি কমিটির যাচাই-বাছাইয়ের পর চূড়ান্ত পর্যায়ে ২৬ হাজার ৪০৫ জন শিক্ষার্থী লিখিত ভর্তি পরীক্ষার জন্য মনোনীত হয়েছেন। অর্থাৎ প্রতি আসনের জন্য ৩২ শিক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন।

ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি রোধ করার লক্ষে এবার বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে মাত্র দুইটি কেন্দ্র ছাড়া অন্য কোথাও পরীক্ষার কেন্দ্র করেনি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।  পরীক্ষার্থীদের সংখ্যা বেশি হওয়ায় এবার ভর্তি পরীক্ষা দুই শিফটে (সকাল ও বিকাল) ও চারটি পরীক্ষা কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়েছে।   

ইউনিট-১ এর প্রথম শিফট বেজোড় রোলধারীদের জন্য নির্ধারণ করা হয়। এই শিফটের পরীক্ষা সকাল ১০টা থেকে ১১.৩০টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই শিফটে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন ১৩ হাজার ২৪১ জন পরীক্ষার্থী। আর দ্বিতীয় শিফট জোড় রোলধারীদের জন্য নির্ধারণ করা হয়। এই শিফটের ভর্তি পরীক্ষা বিকাল ৩.৩০টা থেকে ৫.০০টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হয়। এই শিফটে ১৩ হাজার ১৬৪ জন পরীক্ষার্থী ভর্তি পরীক্ষায় অংশ করেন।

কয়েকজন শিক্ষার্থী ঢাকাটাইমসকে বলেন, প্রশাসনের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানাই। এতে ভর্তি জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত চক্র সুযোগ কম পাবে। তবে তারা মনে করেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে সতর্ক থাকতে হবে যেন ভর্তি জালিয়াতি চক্র তাদের কার্যক্রম চালাতে না পারে। এতে প্রকৃত মেধাবী শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ পাবে।

এই বিভাগের আরও খবর