নতুন রূপে আসছে ‘দুরন্ত সময়’

img

বিনোদন প্রতিবেদক:

দুরন্ত টেলিভিশনের জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘দুরন্ত সময়’-এর দ্বিতীয় সিজন  প্রচারে আসছে আগামী ১৪ আক্টোবর থেকে। তবে অনুষ্ঠানটি এবার আসছে নতুন রূপে। অনুষ্ঠানটির মাধ্যমে শিশুদের খেলতে খেলতে ব্যায়াম শেখানো হয়। নতুন সিজনে তার সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে নতুন কিছু বিষয়।

‘দুরন্ত সময়’ যৌথভাবে পরিচালনা করছেন পার্থ প্রতিম হালদার ও জামাল হোসেন আবির। প্রধান সহকারী পরিচালক হিসেবে আছেন আমিনা নওশিন রাইসা। চিত্রগ্রহণ পরিচালক হিসেবে ছিলেন আজিমুল হক আরজু এবং নির্বাহী প্রযোজক সুমনা সিদ্দিকী।

প্রথম সিজনে অনুষ্ঠানটিতে স্বল্প আকারে ছড়া থাকলেও এবার প্রতি পর্বে তিনটি করে ছড়াগান থাকবে। ৬৫ পর্বের এই অনুষ্ঠানে মোট ৭১টি ছড়াগান ব্যবহৃত হয়েছে। গানগুলো লিখেছেন জুয়েল কবীর আকাশ। সুর ও সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন আবিদা সুলতানা।

এছাড়া দ্বিতীয় সিজনের প্রতি পর্বে একটি করে পেশার পরিচয় ঘটানো হবে এবং সে পেশার মানুষদের ওপর এবং বিভিন্ন দেশীয় গ্রামীণ খেলার ওপর নির্মিত তথ্যচিত্র দেখানা হবে। শেখানো হবে- ক্রাফট, ছবি আঁকা, অরিগামি, ছায়াপুতুল, ক্যালিগ্রাফি ইত্যাদি নানান মজার বিষয়।

অনুষ্ঠানের প্রতি পর্বে বাংলাদেশের একটি করে প্রাণী সম্পর্কে জানানো হবে শিশুদের। আর শিশুদের আনন্দের মাধ্যমে শেখানোর জন্য প্রতি পর্বে হাজির হবে মূকাকু নামে আকর্ষণীয় একটি চরিত্র।

অনুষ্ঠানটির ছড়া গানগুলোর নাচের কোরিওগ্রাফার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সুইটি দাশ চৌধুরী। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শিশু শিল্পী আফরা, পারিশা, ঋদ্ধি, প্রহর, রোজা, মেধা, আরবিন, লারিসা, নোরা, ফাবিহা, আতিকা।

খালামনি চরিত্রে তন্নি, প্রেমা, সোমা, সিন্থিয়া ও চাচ্চু চরিত্রে আকাশ। মূকাকু নামে চরিত্রে অভিনয় করেছেন মূকাভিনয় শিল্পী নিথর মাহবুব। মূকাভিনয়ের মূ এর সঙ্গে কাকুর সংযোগ ঘটিয়ে চরিত্রটির নাম রাখা হয়েছে মূকাকু।