নড়াইল হাসপাতালের চার চিকিৎসককে ওএসডি করা হয়েছে

img

নিজস্ব প্রতিবেদক:

নড়াইলের সংসদ সদস্য মাশরাফি বিন মর্তুজা আকস্মিক জেলা সদর হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসক না পাওয়ার পর ওই হাসপাতালের চার চিকিৎসককে ওএসডি করা হয়েছে। বিনা অনুমতিতে হাসপাতালে অনুপস্থিতির কারণ দর্শানোর নোটিশের পাশাপাশি তাদের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। চার চিকিৎসক হলেন- নড়াইল সদর হাসপাতালের সার্জারির সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মো. আখতার হোসেন, কার্ডিওলজির জুনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মো. শওকত আলী ও ডা. মো. রবিউল আলম এবং মেডিকেল অফিসার ডা. এ এসএম সায়েম।

রবিবার স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। সেখানে চার চিকিৎসককে ওএসডি করে সাত কর্মদিবসের মধ্যে তাদের মহাখালীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে যোগ দিতে বলা হয়েছে।

চার চিকিৎসককে দেওয়া কারণ দর্শানোর নোটিশে বলা হয়েছে, তারা গত ২৪ এপ্রিল কর্তৃপক্ষের বিনা অনুমতিতে কর্মস্থল নড়াইল সদর হাসপাতালে অনুপস্থিত ছিলেন। বিষয়টিকে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ অনুযায়ী ‘অসদাচরণের সামিল’ উল্লেখ করে তাদের এমন আচরণের বিরুদ্ধে কেন বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তা জানাতে বলা হয়েছে। কারণ দর্শাতে তিন কর্মদিবস সময় দেওয়া হয়েছে চার চিকিৎসককে।

গত বৃহস্পতিবার বিকালে আকস্মিক নড়াইল সদর হাসপাতাল পরিদর্শনে যান মাশরাফি। কিন্তু সেদিন সেখানে গিয়ে কোনো চিকিৎসককে পাননি তিনি। এমনকি নার্সও ছিলেন মাত্র দু’জন। তিনি হাজিরা খাতায় বেশ কয়েকজন চিকিৎসকের হাজিরাও দেখতে পাননি। অনুপস্থিত কয়েকজন চিকিৎসকের সঙ্গে তিনি তাৎক্ষণিক মোবাইল ফোনে কথা বলেন। কিন্তু তারা কেউ সদুত্তর দিতে পারেননি।

এ সময় মাশরাফি হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড পরিদর্শন করেন এবং রোগীদের কাছ থেকে বিভিন্ন অনিয়ম-অভিযোগের কথা শোনেন। পরে রাতে স্থানীয় প্রশাসন ও পুলিশ কর্মকর্তাদের নিয়ে হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক, সিভিল সার্জন, ডাক্তার, নার্স ও কর্মচারীদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবা নির্বিঘ্ন রাখতে ওই বৈঠকে বেশকিছু নির্দেশনাও দেন তিনি।