নড়বড়ে সব সেতু দ্রুত সংস্কারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

img

নিজস্ব প্রতিবেদক:

দেশের সব রেল ও সড়কে থাকা সেতুগুলোর অবস্থা জরিপ করার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া যেসব নড়বড়ে সেতু আছে সেগুলো দ্রুত সংস্কারের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে একনেকের সভায় এই নিদের্শনা দেন সরকারপ্রধান। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সভা শেষে সাংবাদিকদের সামনে বৈঠকের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিতাস সেতুতে মেরামতের জন্য প্রায় এক সপ্তাহ ধরে সড়কপথে যোগাযোগ ব্যাহত হয়। এ কারণে ট্রেনে চাপ পড়ে ওই পথে চলাচল করা মানুষের।

এর মধ্যে রবিবার দিবাগত রাতে মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল এলাকায় সিলেট থেকে ঢাকায় আসার পথে উপবন এক্সপ্রেস ট্রেনের পাঁচটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে চারজন মারা যান। লাইনচ্যুত হওয়া এসব বগির মধ্যে দুটি কালভার্ট ভেঙে খালে পড়ে যায়।

কালভার্টের সমস্যায় দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে শুরুতে ধারণা করা হলেও পরে রেলের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, রেল সেতুর কোনো সমস্যা ছিল না। বগির চাকা খুলে যাওয়ায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে।

দুর্ঘটনার পর গতকাল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নাজুক সেতুগুলো শনাক্ত করে নতুন করে নির্মাণের পরামর্শ দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছিলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম। আজকের একনেকের বৈঠকেও নাজুক সেতুগুলো শনাক্ত করে দ্রুত সংস্কারের তাগিদ দেন সরকারপ্রধান।

একনেকের বৈঠকের পর পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, একনেকের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী কয়েকটি অনুশাসন দিয়েছেন। তার মধ্যে রেলওয়ে ও সড়কের সকল সেতু দ্রুত জরিপ করার নির্দেশ দিয়েছেন। এছাড়া যেসব সেতুর অবস্থা নড়বড়ে, সেগুলো যেন দ্রুত সংস্কার করা হয় সে বিষয়ে তাগিদ দিয়েছেন।

এছাড়া একনেকের সভায় ছয় হাজার ৯৬৭ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০টি উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানান মন্ত্রী