স্ত্রী-পুত্রসহ ওমর ফারুক চৌধুরীর ব্যাংক লেনদেন স্থগিত

img

নিজস্ব প্রতিবেদক:

যুবলীগ চেয়ারম্যানের পদ হারানো ওমর ফারুক চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব থেকে সব ধরনের লেনদেন স্থগিত করেছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। সেইসঙ্গে তার স্ত্রী, তিন ছেলে ও দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান লেক ভিউ প্রোপার্টিজ ও রাও কনস্ট্রাকশনের ব্যাংক হিসাব লেনদেনও স্থগিত করা হয়েছে। 

ফলে তারা তাদের ও প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব থেকে এখন আর কোনও টাকা উত্তোলন বা স্থানান্তর করতে পারবেন না। 

সম্প্রতি এনবিআর আয়কর অধ্যাদেশ ১৯৮৪ এর ১১৬ ধারার ক্ষমতাবলে এ আদেশ দেন।

এনবিআর ব্যাংকগুলোর কাছে পাঠানো চিঠিতে বলেছে, ওমর ফারুক চৌধুরী, তার স্ত্রী শেখ সুলতানা রেখা, ছেলে আবিদ আহমেদ চৌধুরী, মুক্তাদির আহমেদ চৌধুরী ও ইশতিয়াক আহমেদ চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব এবং তাদের দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে কোনও টাকা উত্তোলন বা স্থানান্তর করা যাবে না। 

ওই চিঠিতে তাদের বর্তমান ঠিকানা উল্লেখ করা হয়েছে, ধানমন্ডির ৮/এ সড়কের ইস্টার্ন হেরিটেজ, রমনার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের ৪৫ নম্বর বাসা ও চট্টগ্রামের রাউজানের সূত্রাপুর। 

গত ৩ অক্টোবর বাংলাদেশ ব্যাংক ওমর ফারুক চৌধুরীর ব্যাংক হিসাব তলব করে। তিন কার্যদিবসের মধ্যে তার নামে থাকা সব হিসাবের লেনদেন তথ্য, বিবরণীসহ সব পাঠাতে ব্যাংকগুলোকে চিঠি দেয় বাংলাদেশ ব্যাংকের ফাইন্যান্সিয়াল ইনটেলিজেন্স ইউনিট।

গেল ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভুঁইয়াকে ক্যাসিনো-বাণিজ্যের অভিযোগে গ্রেফতারের পরই যুবলীগ চেয়ারম্যানের নাম সামনে আসতে থাকে। এরইমধ্যে জি কে শামীম ও সদ্য বহিষ্কৃত যুবলীগ দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাটকে গ্রেফতার করা হয়। চলমান এই ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানে অবৈধ এই ব্যবসায় ওমর ফারুক চৌধুরীর সম্পৃক্ততা নিয়েও বিভিন্ন মহলে গুঞ্জন ওঠে। অনিয়ম, দুর্নীতি ও টেন্ডারবাজিরও অভিযোগ উঠে তার বিরদ্ধে।