সংসদে ভবনে সম্পন্ন হয়েছে খোকার জানাজা

img

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সংসদ ভবনে সদ্য প্রয়াত বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার দ্বিতীয় নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) বেলা সোয়া ১১টায় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় জানাজা সম্পন্ন হয়। 

জানাজা শুরুর আগে সাদেক হোসেন খোকার বড় ছেলে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘আমি প্রথমবার সংসদে পা রেখেছি আমার বাবার মরদেহ নিয়ে। যদিও আমার বাবা ৪ বার সংসদ সদস্য হয়ে এই মহান সংসদে এসেছিলেন। আমার বাবাকে আপনারা শ্রদ্ধা জানাতে এখানে এসেছেন। সবার প্রতি আমার পরিবারের পক্ষ থেকে কৃতজ্ঞতা জানাই। আপনাদের এখানে উপস্থিতি প্রমাণ করে আমার বাবার সবার সঙ্গে সুসম্পর্ক ছিলো। আপনাদের ধন্যবাদ।’ 

ইশরাক বলেন, ‘আমার বাবার বুকে চাপা কষ্ট রয়েছে। তিনি নিজ দেশে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করতে পারেননি। তিনি ট্রাভেল ডকুমেন্ট নিয়ে এখানে এসেছেন। তিনি ২০১৭ সালে পাসপোর্ট নবায়নের আবেদন করেছেন। কিন্তু সেটা পাননি।’ 

বাবার কফিন সামনে রেখে খোকার ছেলে আরও বলেন, ‘আমার বাবা আমি যে দিন নিউইয়র্ক গেলাম সেদিন শেষ কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, তার জানাজা যেন দেশে হয়। আমি সরকারকে ধন্যবাদ জানাই আমার বাবার মরদেহ দেশে আনতে সহযোগিতা করার জন্য।’ 

তিনি বলেন, ‘বাবা আমাকে বলেছিলেন, ‘আমি বাক্সবন্দি হয়ে দেশে যাবো’। ঠিক-ই তিনি বাক্সবন্দি হয়েই আসলেন। তার দেহটা প্যাকেট হয়ে দেশে এসেছে। বাবার এই অন্তিম কথাগুলো আমি কখনও ভুলতে পারবো না।’

এসময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মওদুদ আহমদ বলেন, ‘সাদেক হোসেন খোকা একজন সর্বজনবিদিত রাজনীতিবিদ ছিলেন। তিনি প্রথম আধুনিক ঢাকা গড়ার কাজ শুরু করেছিলেন। আপনারা সবাই তার জন্য দোয়া করবেন- আল্লাহ যেন তাকে জান্নাত দান করেন।’ 

সাদেক হোসেন খোকার দুই ছেলে ইশরাক হোসেন ও ইশফাক হোসেন সংসদ ভবনের জানাজায় উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সাবেক রাষ্ট্রপতি বদরুদ্দোজা চৌধুরী, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহ উদ্দিন, ওয়ার্কার্স পাটির সভাপতি সাংসদ রাশেদ খান মেনন, সাবেক স্বরাষ্ট্রপ্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু, সাবের হোসেন চৌধুরী, কল্যাণপার্টির সৈয়দ মোহাম্মদ ইব্রাহিম, তোফায়েল আহমেদ, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অলী আহমদ, আবদুল মঈন খান প্রমুখ জানাজায় অংশ নেন। 

জানাজা শেষে বিরোধী দলের পক্ষে জাপা মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা শ্রদ্ধা জানান, এরপর অলী আহমেদ, বিএনপির সংসদ সদস্যরা, উত্তরের মেয়র আতিকুক ইসলাম, মওদুদ আহমদের নেতৃত্বে বিএনপির স্থায়ী কমিটি, ভাইস চেয়ারম্যান, উপদেষ্টারা শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।