শ্রমিক লীগের সভাপতি ফজলুল হক মন্টু ও সম্পাদক আজম খশরু

img

নিজস্ব প্রতিবেদক:

সাতবছর পর নতুন কেন্দ্রীয় কমিটি পেল আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন জাতীয় শ্রমিক লীগ। নতুন কমিটির সভাপতি হয়েছেন মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টু। তিনি আগের কমিটিতে কার্যকরী সভাপতির দায়িত্ব পালন করছিলেন। সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন কে এম আজম খশরু। তিনি আগের কমিটির প্রচার সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

শনিবার বিকালে সংগঠনটির ১৩তম সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে নতুন এই নেতৃত্ব নির্বাচন করা হয়। সভাপতি পদে সাতজন। আর সাধারণ সম্পাদক পদে ১২ জনের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে।

শুরুতে সভাপতি হিসেবে প্রস্তাবনা আসে হাবিুর রহমান, ফজলুল হক মন্টু, জহুরুল ইসলাম চৌধুরী, মোল্লা আবুল কালাম আজাদ, সিরাজুল ইসলাম, নূর কুতুব আলম ও ইদ্রীস আলী ভূঁইয়ার পক্ষে।

আর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে প্রস্তাবনা আসে অ্যাডভোকেট হুমায়ূন কবির, মকর আলী, মো. আমিনুল ইসলাম, আলহাজ্ব আজাদ আলী খান, সুলতান আহমেদ, আমীর খসরু, অ্যাডভোকেট আখতারুজ্জামান শাহীন, আজম খসরু, তোফায়েল আহমেদ, আব্দুল হালিম, মো. শাহাব উদ্দিন ও মোল্লা আবুল কালাম আজাদের পক্ষে।

তাদের মধ্য থেকে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের নতুন সভাপতি মন্টু ও সাধারণ সম্পাদক খশরুর নাম ঘোষণা করেন। এর আগে বেলা ১১টায় ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়।

শ্রমিক লীগের গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দুই বছর পর পর সম্মেলন হওয়ার কথা থাকলেও শুকুর মাহমুদ ও সিরাজুল ইসলামের কমিটি সাত বছরেরও বেশি সময় ধরে নেতৃত্বে ছিলেন। যা নিয়ে নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ছিল। আওয়ামী লীগের অন্যান্য সহযোগী সংগঠনের মত শ্রমিক লীগও জাতীয় সম্মেলন করে নতুন করে নেতৃত্ব নির্বাচন করলে। বর্তমান শ্রম আইন অনুযায়ী নতুন কমিটির মেয়াদ তিন বছর।

এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহউদ্দিন নাছিম, সহ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।