ভারতের উত্তরপ্রদেশে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে নিহত ১৪

img

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারতের উত্তরপ্রদেশে একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষে  ১৪ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরো অন্তত ২০ জন। আহতদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার রাতে ভারতের আগ্রা-লখনৌ এক্সপ্রেসওয়েতে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, এ দিন রাতে ওই যাত্রীবাহী বাসটি বিহারের দিকে যাচ্ছিল সেই সময় ট্রাকের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়। প্রায় ৪০ জন ওই বাসটিতে ছিলেন। রাত হয়ে যাওয়ায় বাসের মধ্যে প্রায় সকলেই ঘুমিয়ে পড়েছিলেন। আচমকা দুর্ঘটনা ঘটে।

উদ্ধারকর্মীদের সূত্রে জানা গেছে, এক্সপ্রেসওয়েতে টায়ার নষ্ট হয়ে যাওয়াতে একটি ট্রাক লেন পরিবর্তন করে  ডান লেনে চলে যায়। এ সময় বাসটি ট্রাকের পেছনে ধাক্কা দেয়।

দুর্ঘটনাকবলিত বাস থেকে আহত ব্যক্তিদের বের করতে ও নিহতদের লাশগুলি সরিয়ে নিতে তিন ঘন্টা সময় লেগেছে। হতাহত কয়েকজন জানালার বাইরে ঝুলন্ত অবস্থায় ছিল। পুরো দৃশ্যটি অত্যন্ত ভয়াবহ ছিল, ইউপিইআইডিএ টহলদল দলের এক সদস্য ঘটনাস্থলে বলছিলেন।

আহতদের উদ্ধারের পর নিয়ে যাওয়া হয় সাইফাই মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে।  সাফাই মিনি পিজিআই এর এমার্জেন্সি ওয়ার্ডের মেডিক্যাল অফিসার বিশ্ব দীপক জানিয়েছেন, আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি এবং ১৩ জনকে মৃত অবস্থায় আনা হয়'।

আগ্রার এক পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, এখনও পর্যন্ত ১৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। আহদের সাইফাই মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে। দুর্ঘটনার খবর শুনেই সংশ্লিষ্ট জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারকে ঘটনাস্থলে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ।

দুর্ঘটনার প্রভাব এতটাই মারাত্মক ছিল যে বাসটি দুমড়ে-মুচড়ে তার দৈর্ঘ্যের অর্ধেক হয়ে গেছে। বাসটি  রাজধানী দিল্লি থেকে বিহারের মোতিহার যাচ্ছিল, আগ্রা রেঞ্জের পুলিশ পরিদর্শক সতীশ গণেশ জানিয়েছেন।