খালেদার মুক্তির বিষয়ে কাদের-ফখরুলের ফোনালাপ

img

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ 

দুর্নীতি মামলায় কারাবন্দি রয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল’র (বিএনপি) প্রধান খালেদা জিয়া। তার প্যারোলে মুক্তির বিষয় নিয়ে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন। এ সময় দলের প্রধানের অসুস্থতার বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানাতে ওবায়দুল কাদেরকে অনুরোধ করেন ফখরুল। 

আজ শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানান ওবায়দুল কাদের। 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএন‌পি এক মু‌খে দুই কথা ব‌লছে। এটা তাদের দ্বিচা‌রিতা। তাদের রাজনীতি, আন্দোলনে ব্যর্থতার মূল কারণ হচ্ছে এটা। তারা কি চায়, সে ব্যাপারে তারা নিজেরাই পরিষ্কার নয়। নেতিবাচক রাজনীতির কারণেই তারা নির্বাচনে হেরে যাচ্ছে, আন্দোলনেও হেরে যাচ্ছে। বেগম জিয়ার মুক্তির আন্দোলনে বারবার ডাক দিয়েও জনগণের সাড়া পাচ্ছে না।’ 

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কা‌দের ব‌লেন, ‘বেগম খা‌লেদা জিয়ার প্যা‌রো‌লে মু‌ক্তির বিষ‌য়ে ফখরুল ইসলাম আলমগী‌র আমাকে টে‌লি‌ফো‌ন করেছিলেন- প্যারলোর জন্য আমি যেন বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর কাছে পৌঁছে দিই। আমি এ বিষ‌য়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইনমন্ত্রীর স‌ঙ্গে কথা ব‌লে‌ছি। এ ব্যাপা‌রে তারা  লি‌খিত কোনও আবেদন পান‌নি। খালেদার প্যারোলে মুক্তি বিএনপি শুধু মু‌খে মু‌খেই বল‌ছে।’

তিনি বলেন, ‘খা‌লেদা জিয়ার প্যা‌রো‌লে মু‌ক্তির বিষয়‌টি আদাল‌তের বিষয়। এ বিষ‌য়ে তারা মু‌খে মু‌খে বল‌ছেন, কিন্তু লি‌খিত কোনও আবেদন ক‌রেন‌নি। এটা দুর্নী‌তির মামলা। রাজ‌নৈ‌তিক মামলা হলে সরকারপ্রধান বি‌বেচনা কর‌তে পার‌তেন।’

সেতুমন্ত্রী ব‌লেন, ‘বিএনপি প্যা‌রোলের জন্য আবেদন কর‌লে কী কী কার‌ণে প্যা‌রোল চান তা আবেদ‌নে উল্লেখ কর‌তে হ‌বে। সেটা নিয়‌মের ম‌ধ্যে প‌ড়ে কিনা তাও দেখ‌তে হ‌বে।’ 

অপর এক প্রশ্নের জবা‌বে তি‌নি ব‌লেন, ‘মেডি‌কেল‌ বোর্ড যে রি‌পোর্ট দে‌বে তা আদাল‌তের কা‌ছে ‌পৌঁছুঁতে হ‌বে। খা‌লোদা জিয়ার শা‌রীরিক অবস্থা নি‌য়ে নেতারা যেভা‌বে ব‌লেন দা‌য়িত্বরত ডাক্তাররা সেভা‌বে ব‌লেন না। খা‌লেদা জিয়ার শা‌রীরিক অবস্থার অবন‌তি হ‌লে সরকার এতটা অমান‌বিক আচরণ কর‌বে না।’ 

ভালোবাসা দিবসে বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে কর্ম সম্পর্কের সেতু নির্মাণের বার্তা নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘নেতিবাচক রাজনীতি পরিহার করে আসুন আমরা সংশয়, সন্দেহ, বিদ্বেষের দেয়াল ভেঙে সমঝোতার সেতু রচনা করি। ভালোবাসার সঙ্গে রক্ত মিশে আছে, স্মৃতির পাতায়। আমরা চাই দেশের রাজনীতিতে সুন্দর কর্ম সম্পর্ক পরিবেশ গড়ে উঠুক। অন্ধ বিদ্বেষ, আক্রোশের রাজনীতির দেয়াল ভেঙে আমরা যেন কর্ম সমঝোতার একটা সুন্দর সেতু নির্মাণ করতে পারি, দেশের রাজনীতিতে ইতিবাচক সুবাতাস বইয়ে দিতে পারি- সেটাই আজকের দিনে প্রত্যাশা।’ 

সংবাদ সম্মেলনে দলের অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবাহান গোলাপ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পাদক প্রকৌশলী আব্দুস সবুর, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান, কেন্দ্রীয় সদস্য আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।